চাকরির সাক্ষাতকারের জন্য যেভাবে পোশাক পড়বেন

চাকরির সাক্ষাতকারের জন্য যেভাবে পোশাক পড়বেন

প্রথমে দর্শন ধারী তারপর গুণ বিচারী। একটি সাক্ষাৎকারের প্রথম ইম্প্রেশন হলো আপনার প্রথম দর্শন।তা যদি ভালো না হয় তাহলে পরবর্তী সময়টা ভালো না হবার সম্ভাবনা বেশি থাকে।কারণ প্রথম দর্শনে আপনার উপর চাকরিদাতাদের যে ধারণা তৈরি হয়েছে তা সাক্ষাতকারের শেষ অবধি পর্যন্ত থেকে যায়। যা কোনো ভাবেই সুফল বয়ে আনতে পারে না। কেননা সাক্ষাতকারে একজন নিয়োগকর্তা শুধু আপনার জ্ঞানই যাচাই করেন না তার সাথে সাথে দেখে নেন আপনি চাকরিটির জন্য আগ্রহী কিনা। আপনার অসাবধানতা বসত পরে আশা পোশাক নিয়োগকর্তাদের কাছে ভুল তথ্য পাঠিয়ে দেয়।তাই সাক্ষাৎকারের সময় সঠিক পোশাক পরিধান করা অনিবার্য। তাহলে আসুন জেনে নেই কোন ধরণের পোশাক সাক্ষাতকারে পরে যাওয়া উচিত।


ছেলেরা যা পরবেন

১. হালকা রঙের স্যুট , টাই আর চামড়ার জুতা পরে যাবেন

২. ঘড়ি বাদে অন্য কোন গহনা যেমন চেইন , কানের দুল ইত্যাদি পড়বেন না।

৩. আপনার হাতে, গলায় বা অন্য কোনো জায়গায় যদি উল্কা চিহ্ন করা থাকে তা ইন্টার্ভিউ এর আগে মুছে ফেলুন অথবা তা যথা সম্ভব দৃষ্টির আড়ালে রাখুন।

৪. জুতা ভালো করে পলিশ করে নিন।

৫. হালকা সুগন্ধি ব্যবহার করুন তবে তা খুবই অল্প পরিমাণে ব্যবহার করতে হবে যাতে তা কারো বিরক্তির কারণ হয়ে না দাঁড়ায়

৬. হাতে ব্রেসলেট গলায় চেন ইত্যাদি পড়বেন না

৭. রঙের ক্ষেত্রে নেভি ব্লু অথবা সাদা শার্ট ও কালো প্যান্ট পড়ুন

৮. ফুল স্লিভ শার্ট পড়ুন।

৯. গাঢ় রং ও অতিরঞ্জিত টাই পড়বেন না

১০. কালো রঙের মোজা পড়ুন


মেয়েরা যা পরবেন

১. সালওয়ার কামিজ , শাড়ি আর স্যান্ডেল অথবা জুতা পরে যেতে পারেন

২. সামান্য গহনা পড়তে পারেন কিন্তু তা হতে হবে খুবই সামান্য।

৩. জুতা বা স্যান্ডেল ভালো করে পলিশ করে নিন।

৪. অতিরিক্ত মেকআপ করতে যাবেন না। খুবই হালকা মেকআপ করুন যাতে তা অতিরঞ্জিত মনে না হয়।

৫. যদি শাড়িতে স্বচ্ছন্দ বোধ করেন তাহলেই কেবল শাড়ি পড়ুন নচেৎ শাড়ি পড়বেন না

৬. আপনার স্কিন টোনের সাথে খাপ খায় এমন নেইল পালিশ ব্যবহার করুন

৭. হালকা সুগন্ধি ব্যবহার করুন তবে তা খুবই অল্প পরিমাণে ব্যবহার করতে হবে যাতে তা কারো বিরক্তির কারণ হয়ে না দাঁড়ায়

৮. যদি হিল পড়েন তাহলে লক্ষ্য রাখবেন তাতে যেন আপনি নিজে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন

Related Posts

Leave a Comment